রাঙ্গামাটিতে পা রাখলো পাঃ চঃ উঃ বোর্ডের নবাগত চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা

20

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙ্গামাটিঃ-বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রেখে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত সকল সম্প্রদায়ের সামগ্রীক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটানোই হবে আমার মুল চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের নবাগত চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে আজ যে গুরুত্ব দায়িত্ব দিয়েছে তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করে পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রতিটি মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনের মাধ্যমেই নিজের দায়িত্ব পালন করবো।
পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামকে একটি শান্তি, সম্প্রীতি ও উন্নয়নের মডেল হিসাবে রূপান্তর করার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। পার্বত্য চট্টগ্রামকে আধুনিক হিসাবে গড়ে তুলতে বর্তমান সরকারের যে পরিকল্পনা রয়েছে তা সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করা হবে। যে পরিকল্পনাগুলো আমরা ধীরে ধীরে বাস্তবায়নের দিকে এগিয়ে যাবো। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডকে আমরা যাতে জনমুখী করে তুলতে পারি তার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
সোমবার (১২ জুলাই) দুপুরে রাঙ্গামাটিতে প্রবেশকালে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগ ও রাঙ্গামাটি সর্বস্তরের জনগন তাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানানো কালে সংবর্ধনার জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
চেয়ারম্যান দুপুরে ঢাকা থেকে সড়ক পথে রাঙ্গামাটি আসার প্রবেশ পথে কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়ায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংসুই প্রু চৌধুরী, কাউখালী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সামশুদোহা চৌধূরী ও আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীসহ স্থানীয় জনসাধারন ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।
এর পর রাঙ্গামাটিতে আসার সময় ঘাগড়া, চম্পাতলী, মানিকছড়িসহ বিভিন্নস্থানে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। রাঙ্গামাটির ভেদভেডিস্থ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বিশ্রামাগারে এসে পৌছলে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান আশিষ কান্তি বড়–য়া, সদস্য ড. প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, জেলা আওয়ামীগের সহ-সভাপতি রুহুল আমিন, চিংকিউ রোয়াজা, সাবেক মহিলা সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ মুছা মাতব্বর, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজী সোলায়মান বাদশা, সাধারণ সম্পাদক মনসুর আলীসহ রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগ ও অংগ সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে বরন করে নেয়া হয়।
এছাড়া রাঙ্গামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ শহীদুজ্জামান মহসিন রোমান, আওয়ামীলীগ নেতা অংচা প্রু মারমা, রাঙ্গামাটি চেম্বার অব কর্মাসের প্রেসিডেন্ট আব্দুল ওয়াদুদ, ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজন, সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা, যুবলীগের আবু তৈয়ব, ছাত্রলীগ নেতা মোঃ ইকবালসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা ফুলের শুভেচ্ছা জানান।
এদিকে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যানকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এসময় রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুই প্রু চৌধুরী, সদস্য হাজী মোঃ মুছা মাতব্বর, রেমলিয়ানা পাংখোয়া, সবির কুমার চাকমা, ইলিপন চাকমা, ঝর্না চাকমাসহ অন্যান্য সদসরা উপস্থিত ছিলেন।
অপরদিকে রাঙ্গুনিয়া আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে রানীরহাট বাজারে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ডঃ হাসান মাহমুদের পক্ষ থেকে নিখিল কুমার চাকমাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও দূর্যোগ সম্পাদক মোঃ কামাল চৌধুরী, রাঙ্গুনিয়া ইউণিয়ন আওয়ামীলীগে সহ-সভাপতি ও রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ সেকান্দর হোসেন চৌধুরী, ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সাদেক নুর চৌধুরী টিপুসহ অন্যান্য নেতৃৃবন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সেখান থেকে পরে নবাগত চেয়ারম্যান বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি, জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতি ও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পন করেন। এর পর তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান কার্যালয়ে গিয়ে উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়াম্যান ও সদস্যদের সাথে মতবিনিময় করেন।
এছাড়াও নবাগত চেয়ারম্যান রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খাদ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপিকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান। এ সময় সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার নবাগত চেয়ারম্যানকে আন্তরিক ভাবে কাজ করে পার্বত্য অঞ্চলের উন্নয়ন তরান্বিত করে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করেন।
বিকেল সাড়ে তিনটায় রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামলীগ কার্যালয়ে অনুষ্টিত সংবর্ধনা সভায় যোগদান করেন।
উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর সম্প্রতি জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমাকে দুই বছরের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়। যোগদানের তারিখ থেকে তার দুই বছরের মেয়াদ কার্যকর শুরু হবে বলে জানানো হয়েছে তার নিয়োগ প্রজ্ঞাপনে। নিখিল পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের প্রথম চেয়ারম্যান হলেন, যিনি আমলা, সেনাবাহিনী এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির বাইরে প্রথম বেসামরিক ব্যক্তি, যিনি নির্বাচিত না হয়েও দায়িত্ব পালন শুরু করছেন। তার হাত ধরেই হয়ত, নতুন অধ্যায়ে প্রবেশ করছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড।
এর আগে গত ৭ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে যোগদান প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন নিখিল। গতকাল সোমবার রাঙ্গামাটিতে আগমন এবং সেদিন থেকেই তার আনুষ্ঠানিক দাপ্তরিক কার্যক্রম শুরু হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা নিজেই। দায়িত্ব পালনে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন তিনি।
অন্যদিকে নিখিল কুমার চাকমাকে বরণ করতে কাউখালী থেকে শুরু করে শহরের বিভিন্ন স্থানে আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের ব্যানার ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো শহর। এছাড়া রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকেও তৈরি করা হয়েছে একাধিক তোরণ। উন্নয়ন বোর্ড প্রধান কার্যালয়ের সীমানা প্রাচীর ছেয়ে ফেলা হয়েছে ব্যানার ফেস্টুনে।