রাঙ্গামাটিতে জনসংহতি সমিতি’র সতন্ত্র প্রার্থী ঊষাতন তালুকদারের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার

193

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে রাঙ্গামাটি ২৯৯ আসনে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য উষাতন তালুকদার।
শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) সকালে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন খানের কাছে লিখিত ভাবে তিনি সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে দাখির করা তার মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেন।
এসময় রাঙ্গামাটি জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এর সভাপতি গঙ্গা মানিক চাকমাসহ জনসংহতি সমিতির অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
পরে সাংবাদিকদের কাছে উষাতন তালুকদার বলেন, দেশের সার্বিক চলমান পরিস্থিতি এবং পার্বত্য এলাকায় আমাদের বাস্তব অবস্থা ও সার্বিক দিক বিবেচনা করে তার সংগঠনের সিদ্ধান্তক্রমে তিনি তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।
উল্লেখ্য, রাঙ্গামাটি ২৯৯ একটি আসনে ৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন এবং সকলে বৈধ বলে বিবেচিত হয়। উষাতন তালুকদার ছিলেন আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির হেভিওয়েট প্রার্থী। তার প্রার্থীতা প্রত্যাহারে রাঙ্গামাটির নির্বাচনে জনপ্রিয়তার দিকে আওয়ামী লীগের জয়ের সম্ভাবনা আরো উজ্জ্বল হয়ে উঠলো বলে মনে করছেন এলাকার ভোটাররা।
রাঙ্গামাটি আসনে অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, জাতীয় পার্টির হারুনুর রশীদ মাতব্বর, তৃণমূল বিএনপির মোঃ মিজানুর রহমান ও বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের অমর কুমার দে।
উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো নির্বাচনে অংশ নেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নেতা ঊষাতন তালুকদার। এরপর থেকে ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে নৌকার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন তিনি। ২০১৪ সালের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে আওয়ামী লীগের ‘হেভিওয়েট’ প্রার্থী ও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদারকে হারিয়ে এই আসনে সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হন জনসংহতি সমিতির ঊষাতন তালুকদার। পরে ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১ লাখ ৩০ হাজারের বেশি ভোট পেয়ে নৌকার প্রার্থীর কাছে হেরে যান আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির হেভিওয়েট প্রার্থী উষাতন তালুকদার।