টানা তিনদিনের ছুটিতে পর্যটকরা ছুটে আসছেন সাজেক ভ্যালিতে, শতভাগ বুকিং রিসোর্টগুলো

113

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধিঃ-রাঙ্গামাটির অন্যতম নৈসর্গিক সৌন্দর্য্যে ঘেরা পর্যটন স্পট বাঘাইছড়ির ‘সাজেক ভ্যালি’। রোমাঞ্চকর সড়ক, উঁচুনিচু সবুজে ঘেরা পাহাড়সহ শীতের সময় কুয়াশার চাদরে ঢেকে থাকা চারপাশ দেখতে পর্যটকরা পাড়ি জমান দূর্গম এই জনপদে।
সাপ্তাহিক ছুটি ও বড় দিনসহ টানা তিন দিনের ছুটি রয়েছে ২৩, ২৪ ও ২৫ ডিসেম্বর। আর এই ছুটিকে কাজে লাগাতে অনেকেই অগ্রিম বুকিং করে রেখেছেন সাজেকের রিসোর্ট। এ তিনদিনের ছুটিতে শতভাগ বুকিং হয়ে গেছে সাজেকের সব রিসোর্ট। মুক্ত বাতাস নিতে ও ইট-পাথরের শহরের যান্ত্রিক জীবনের একঘেয়েমি দূর করতে ভ্রমণপিপাসু মানুষ বেছে নিয়েছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যরে এই সাজেক ভ্যালী। পরিবার পরিজন নিয়ে ছুটে আসছেন পর্যটকরা।
মেঘকাব্য রিসোর্টের ম্যানেজার আদিব চাকমা বলেন, আমাদের সিঙ্গেল ও ডাবল মিলে ১১টি রুম রয়েছে। সব কয়টি রুম আগাম বুকিং হয়ে গেছে। আমাদের এখনো বুকিংয়ের জন্য ফোন দিচ্ছে তবে আমরা রুম দিতে পারছি না বেড়াতে আসতে চাওয়া পর্যটকদেরকে।
চাঁদের বাড়ি রিসোর্টের ব্যবস্থাপক ইয়াছিন রাসেল বলেন, আমাদের রিসোর্টে আটটি রুম রয়েছে। কাল থেকে যে তিন দিনের ছুটি রয়েছে। এই ছুটিতে আমাদের সবকয়টি রুম বুকিং। এই মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত বুকিং আছে আমাদের।
সাজেক রিসোর্ট মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি চাইথোয়াই অং চৌধুরী জয় বলেন, আমাদের এখানে ১১২টি রিসোর্ট রয়েছে। এগুলোতে ১৭০০ থেকে ১৮০০ পর্যটক থাকা সম্ভব। আমরা কোনো পর্যটককে নিরাশ করতে চায় না। তাই আশা করি টানা এই ছুটিকে আমরা সামলে নিতে পারবো। পর্যটকদের স্বাগত জানাতে আমরা সার্বিকভাবে প্রস্তুতি গ্রহন করেছি। আশা করি পর্যটকরা সাজেকে এসে আনন্দ উপভোগ করবে।