দীঘিনালায় তামাক চাষ বর্জন করে ফসলের উৎপাদন শুরু করতে হবে-আলহাজ্ব মোঃ কাশেম

11

মো. সোহেল রানা, দীঘিনালাঃ-খাগড়াছড়ি দীঘিনালা উপজেলায় ৩শ ৫০ জন প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরে রবি মৌসুমে গম, ভূট্টা, সরিষা, সূর্যমুখী চিনাবাদাম, সয়াবিন, শীতকালীন পেঁয়াজের মুগ, মসুর ও খেসারি ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষি প্রনোদনা কর্মসূচীর আওতায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে কৃষি প্রণোদনা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর।
বুধবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন কার্যালয়ে আয়োজনে দীঘিনালা উপজেলা পরিষদ চেয়রাম্যান আলহাজ্ব মোঃ কাশেম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আরাফাতুল আলম ৫টি ইউপির প্রান্তিক ৩শত৫০ জন কৃষকের মাঝে সার ও বীজ তুলে দেন। এসময় সরিষা বীজ ১ কেজি, এমওপি ১০ কেজি, ডিএপ ১০ কেজি প্রতিজনকে দেওয়া হয়।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, দীঘিনালা উপজেলা পরিষদ নারী ভাইস চেয়ারম্যান সীমা দেওয়ান, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ শাহাদাত হোসেন। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা মোঃ নাইম হোসেন প্রমূখ।
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ কাশেম বলেন, দীঘিনালায় তামাক চাষ বর্জন করে বিকল্প হিসেবে গম, ভূট্টা, সরিষা, সূর্যমুখী চিনাবাদাম, সয়াবিন, শীতকালীন পেঁয়াজের, মুগ ডাল, মসুর ও খেসারি ফসলের উৎপাদন শুরু করতে হবে।
কবাখালী ইউপির দূর্গাকার্বারী পাড়ার শান্তি বিকাশ চাকমা বলেন, বিনামুল্যে কৃষি প্রণোদনা হিসেবে সার বীজ পেয়েছি, আবাদ করে ভালো ফলনের আশা করছি।