এলাকার উন্নয়ন দেখতে হলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে দলমত নির্বিশেষে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে-দীপংকর তালুকদার এমপি

6

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙ্গামাটিঃ-রাঙ্গামাটি সংসদ সদস্য ও খাদ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার বলেছেন, এলাকার উন্নয়ন ও সংস্কার দেখতে হলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে দলমত নির্বিশেষে সকলকে উন্নয়নের কাজে সহযোগীতা করতে হবে। তবেই উন্নয়নের কাজে সরকার এগিয়ে যেতে পারবে। আমাদের যেমন কল্যাণমূখী কাজ জনগনের কাছে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব, তেমনী জনগনেরও দায়িত্ব ও অধিকার শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার। দায়িত্ব ও অধিকার পাশাপাশি জড়িত।
মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) রাত ৯টায় তবলছড়ি বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমবায় সমিতির ৯ম নির্বাচিত ব্যবস্থাপনা কমিটি অভিষেক ও বিদায় সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে তবলছড়ি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহবান জানান।
বিশেষ অতিথি হাবিবুর রহমান তবলছড়ি এলাকার বসতি পরিচয় দিয়ে বলেন, এটি আমার এলাকা, এই এলাকায় কিছু সমস্যা আছে। সমস্যাগুলো পৌরসভাসহ অন্যান্য উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানের সফল ও ব্যর্থতা উভয়ের ব্যাখ্যা দিয়ে কিছু দাবি নিজেই ব্যক্ত করেন।
নব গঠিত ৯ম ব্যবসায়ী সমিতি ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আলহাজ¦ নাছির উদ্দিন বিপ্লব এর সভাপতিত্বে অভিষেক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মুছা মাতব্বর, সাবেক পৌর মেয়র হাবিবুর রহমান হাবিব, রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরিফুল আমিন, বনরুপা ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি সৈয়দ আহমেদ, সি.এন.জি. চালক সমিতির সভাপতি পরেশ মজুমদার এবং সাধারণ সম্পাদক মিজানুরর হমান বাবু প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার চিত্রশিল্পী এবং কৌতুক অভিনেতা ‘চার্লি চ্যালিন’ এর গণসমালোচনা অঙ্কন চিত্রকল্পের উদাহরণ দিয়ে আরো বলেন, আমাদের মাঝে জনসমালোচনার প্রবণতা বেশি। কল্যাণ কাজে এক পক্ষ সন্তুষ্টি প্রকাশ করলে, অন্য পক্ষ সমালোচনা করে। কারণ তখন কিছু মানুষের সাময়িক অসুবিধা হয়। তার পরেও সিংহভাগ মানুষের উপকার হলে সমালোচনাকে তোয়াক্কা করিনা। আমরা ক্ষনিকের বাস্তবায়ন প্রতিনিধি মাত্র। তবলছড়ি বাজার এলাকার নানাবিধ উত্থাপিত দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়ে জননেতা দিপংকার তালুকদার বলেন, আপনাদের সহযোগীতা পেলে অবশ্যই একটি একটি করে পর্যায়ক্রমে সব দাবি বাস্তবায়িত হবে। গুজবে কান দিবেন না। সত্যিকার ভাবে তলিয়ে দেখে ঐক্যমত ভিত্তিতে দেশের উন্নয়নে সহযোগীতা করুন। আন্তর্জাতিক ভাবে বিশ্ব বাজার এখন বিপদ গামি। তাই তার প্রভাব গরিব দেশেগুলোতে পড়া স্বাভাবিক। তা কাটিয়ে তুলে জনগনকে শান্তিতে রাখার জন্য সরকারের প্রচেষ্টার কোন ঘাটতি নেই।
শপথ গ্রহন ও অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিদেরকে সম্মাননা ক্রেস্ট দিয়ে বরণ করা হয়। পাশাপাশি বিদায়ি ব্যবস্থাপনা কমিটি ও ৮ম ব্যবস্থাপনা কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক, নসরত আলী এর পক্ষে তাঁর পুত্রকে মরনোত্তর সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
এর আগে নবগঠিত নির্বাচিত ব্যবস্থাপনা কমিটির নেতৃবৃন্দদের শপথ পাঠ করান বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মুছা মাতব্বর।