বান্দরবানে সৎ মাকে হত্যা দায়ের ছেলের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

8

লামা প্রতিনিধিঃ-বান্দরবানের সৎ মাকে হত্যা দায়ে আলী আহাম্মদ (৫৪) নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত। এছাড়াও তাকে দশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। সোমবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোঃ ফজলে এলাহী ভূঁইয়া এ রায় দেন। দন্ডপ্রাপ্ত আলী আহাম্মদ লামা উপজেলার সদর ইউনিয়নের মেরাখোলা বেগুনঝিরি এলাকার রওশন আলী ছেলে।
তথ্যটি সত্যতা নিশ্চিত করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর মোঃ ইকবাল করিম বলেন, আসামী বিরুদ্ধে ৩০২ ধারায় অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়াই তাকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দিয়েছে আদালত।
আদালতে এজাহার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, রওশন আলী দুটি বিবাহ করেছিলেন। পরে উভয় সংসারে দুই পরিবার মাঝে সম্পত্তি ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিল। ৩০ জুন ১৯৯৮ মঙ্গলবার সকালে সাড়ে ৭টায় মাতামুহুরি নদীতে পানি আনতে যান ফাতেমা বেগম (৪০)। পানি নিয়ে ফেরার পথে আলী মোহাম্মদ ধারালো দা দিয়ে তার সৎ মা ফাতেমা বেগমকে ঘাড়ে কোপ মারেন। এতে ঘাড় থেকে মাথা দু-ভাগ হয়ে গেলে মাটিতে লুটে পড়েন ফাতেমা বেগম। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান আসামী। পরে তাকে ধাওয়া করলে মেরাখোলা স্কুল থেকে তাকে আটক করা হয়। এই মামলায় ৬ জনের স্বাক্ষ্যগ্রহন শেষে আসামীকে যাবজ্জীবন ও অর্থদন্ড মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন আদালত।