পার্বত্য এলাকার কোথাও অন্ধকার থাকবে না, আলোয় আলোকিত হবে পুরো পার্বত্যঞ্চল-পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি

15

থানচি প্রতিনিধিঃ-পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর (উশৈসিং) এমপি বলেন, পার্বত্য এলাকার কোথাও অন্ধকার থাকবে না, বিদ্যুতের পাশাপাশি সৌর বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হবে পুরো পার্বত্যঞ্চল।
বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর ) সকালে বান্দরবানের থানচি উপজেলার মায়ানমার সীমান্ত ঘেঁষা রেমাক্রী বাজারে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে সোলার হোম সিস্টেম ও সেলাই, স্প্রে মেসিন, সার, বীজ বিতরণ কালে এ কথা বলেন।
এসময় মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং আরো বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে পার্বত্য এলাকার সর্বত্র বিদ্যুতের আলো ছড়িয়ে পড়েছে। বিদ্যুতের কারণে জনগনের জীবন যাত্রা মান উন্নত শিকড়ে পৌছেছে এবং অর্থনিতিতে অমুল পরিবর্তন হয়েছে। যে সকল স্থানে সড়ক যোগাযোগ নেই, বিদ্যুৎ নেই, সেখানে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এর মাধ্যমে স্থানীয় বাসিন্দাদের বিনামুল্যে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন সোলার হোম সিস্টেম প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়াও পার্বত্য ৩ জেলায় বিনামুল্যে ৪০হাজার সোলার হোম সিস্টেম প্রদান করা হবে যার মধ্যে বান্দরবানের সাত উপজেলায় বিতরণ হবে ১৪ হাজার সোলার প্যানেল ইতিমধ্যে বিতরন কার্যক্রম শেষ করেছি।
পার্বত্য মন্ত্রী আরও বলেন, শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ। পাহাড়ের দূর্গম অঞ্চলের প্রতিটি ঘর সোলার প্যানেলের মাধ্যমে বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত করা হবে, পাহাড়ের কোনো গ্রামই অন্ধকার থাকবেনা। সরকার পাহাড়ের মানুষের উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক এবং পার্বত্য এলাকায় সর্বত্র আলো ছড়িয়ে দিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড কাজ করে যাচ্ছে আর যার সুফল পাচ্ছে সাধারণ জনগণ।
এসময় সোলার হোম সিস্টেম প্রদান অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মুহা: আবুল মনসুর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সদস্য (প্রকল্প বাস্তবায়ন ও সোলার প্রকল্প পরিচালক) মো. হারুন অর রশিদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান ইউনিটের প্রকল্প পরিচালক আব্দুল আজিজ, নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মোহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত, বান্দরবান জেলা পরিষদে সদস্য ক্যসাপ্রু মারমা, তিংতিংম্যা মারমা, বাশৈচিং হেডম্যান, সিমিয়ন ম্রো, সিয়ন খুমী প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের শেষে রেমাক্রী ইউনিয়ন স্বল্প মেয়াদি পরিবার পরিকল্পনা সেবা সপ্তাহ, নতুন স্থাপিত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র শুভ উদ্বোাধন করেন। এ ছাড়া ও ২০ কৃষক স্প্রে মেসিন, ১০ প্রশিক্ষিত যুবতীকে সেলাই মেসিন, ৩০ জন কৃষককে ১০ কেজি করে সার ও বীজ বিতরন করা হয়।