তেলের মূল্য বৃদ্ধি কারণে রিক্সাবিহীন রাঙ্গামাটি শহরের অটোরিক্সা ভাড়া পুননির্ধারণ; যান চলাচল শুরু

19

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙ্গামাটিঃ-জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে ৫২ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করে রিক্সাবিহীন রাঙ্গামাটি শহরের অভ্যন্তরীণ একমাত্র পরিবহন অটোরিক্সা সিএনজির ভাড়া নির্ধারণ করেছেন জেলা প্রশাসন।
রবিবার (৭ আগস্ট) সকালে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে শহরে অটোরিক্সা ভাড়ার বিষয়ে এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত দেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।
রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান’র সভাপতিত্বে এসময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ আল মামুন মিয়া, রাঙ্গামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জাহিদ হোসেন, বিআরটিএ সহকারি পরিচালক প্রকৌশলী আতিকুর রহমান, রাঙ্গামাটি অঞ্চলিক পরিষদের সদস্য হাজী কামাল উদ্দিন, রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াৎ হোসেন রুবেল, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আল হক, প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি সুনীল কান্তি দে, রাঙ্গামাটি অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন’র সভাপতি পরেশ মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বাবু, আদিবাসী অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি বিপাশ চাকমাসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।
সভা থেকে জানানো হয়, রিক্সাবিহীন রাঙ্গামাটি অভ্যন্তরীণ একমাত্র পরিবহন অটোরিক্সা সিএনজি হওয়ার কারণে শনিবার (৬ আগস্ট) তেল বৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে ভাড়া নিয়ে বাকবিতন্ডার কারণে অভ্যন্তরীণ পরিবহন বন্ধ করে দেয় চালকরা। তাই জরুরি সভায় সিদ্ধান্ত মোতাবেক তেলের দাম বিবেচনা করে ৫২ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে।
সভা থেকে আরও জানানো হয়, শহরের অভ্যন্তরীণ ভাড়া বিবেচনায় ৮ টাকার ভাড়া ১০ টাকা, ১২ টাকার ভাড়া ১৫ টাকা, ২০ টাকার ভাড়া ২৫ টাকার, ২৪ টাকার ভাড়া ৩০ টাকা করে নতুন ভাড়া নির্ধারণ করে বাড়ানো হয়েছে। যা রাঙ্গামাটি শহর এলাকায় অটোরিক্সা সর্বোচ্চ ৩০ টাকা এবং সর্বনিম্ন ভাড়া ১০টাকা করা হয়।
সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, রাঙ্গামাটি শহরে একমাত্র অভ্যন্তরীণ পরিবহন অটোরিক্সা হওয়ায় আমাদের সবাইকে সে বিষয়ে বিবেচনা করে কাজ করতে হবে। কোন ধরণের বিশৃঙ্খলা সহ্য করা হবে না। আমাদের একে অন্যের কথা বিবেচনা করতে হবে এবং সুবিধা-অসুবিধা বুঝতে হবে।
এছাড়া সভায় শহরে যাতে করে হঠাৎ করে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল বন্ধ করে দেয়া না হয়, সিএনজি অটোরিক্সা চালকদের পোষাক ব্যবহারসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
সভা শেষে দীর্ঘ প্রায় ২৭ ঘন্টার পর জেলা শহরের অভ্যন্তরীণ একমাত্র যাত্রী পরিবহণ অটোরিক্সা সিএনজি চলাচল শুরু হয়।