পার্বত্য চট্টগ্রামের শান্তি রক্ষায় সকল সামাজিক সংগঠনকে এগিয়ে আসতে হবে-অংসুইপ্রু চৌধুরী

11

মো. সোহরাওয়ার্দী সাব্বির, রাঙ্গামাটিঃ-পাহাড়ে শান্তি চুক্তির বিরুদ্ধে যে অপশক্তি কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধে সামাজিক সংগঠনগুলোকে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী। তিনি বলেন, যারা পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি বিনষ্ট করছে তাদের প্রতিহত করতে সকল সামাজিক সংগঠনগুলোকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।
বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বিকেল রাঙ্গামাটি চেম্বার অব কমার্স মিলনায়তনে রাঙ্গামাটির অন্যতম মানবাধিকার ও সামাজিক সংগঠন ওয়ার্ল্ড পীস এন্ড হিউম্যান রাইটস সোসাইটির রাঙ্গামাটি জেলা শাখার নবগঠিত কার্যকরী কমিটির অভিষেক ও সংগঠনের ৪র্থ বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সভা প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
ওয়ার্ল্ড পীস এন্ড হিউম্যান রাইটস সোসাইটির রাঙ্গামাটিতে যারা কাজ করছেন তাদের অনুরোধ জানিয়ে প্রধান অতিথি বলেন, মানবাধিকার কর্মী হিসাবে তাদের নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের সমাজকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য যার যার অবস্থানে থেকে সামাজিক, মানবিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো বিশেষ অবদান রেখে চলেছে। সংগঠনগুলো তাদের কার্যক্রমের মাধ্যমে আগামীর প্রজন্মের জন্য যে মূল্যবোধ রেখে যাচ্ছে তাতে সামনের বাংলাদেশ আরো এগিয়ে যাবে।
এতে ওয়ার্ল্ড পীস এন্ড হিউম্যান রাইটস সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শিক্ষক অরূপ মুৎসুদ্দী সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য অংসুই ছাইন চৌধুরী, দৈনিক গিরিদর্পন সম্পাদক আলহাজ্ব একেএম মকছুদ আহমেদ, রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আল হক, ওয়ার্ল্ড পীস এন্ড হিউম্যান রাইটস সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব ড. এ্যাড. শিব্বির আহমেদ, রাঙ্গামাটি সরকারী কলেজে প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক বিধান চন্দ্র বড়ুয়া, রাঙ্গামাটি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. সাজ্জাদ হোসেন প্রমূখ।
এসময়, ওয়ার্ল্ড পীস এন্ড হিউম্যান রাইটস সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা, এ্যাড. লায়ন এম.এ মজিদ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করার পর পর সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, ওয়ার্ল্ড পীস এন্ড হিউম্যান রাইটস সোসাইটির জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পালিত রাজা।