একটি ব্রীজের অভাবে বাঘাইছড়ির পাঁচ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের কষ্ট

24

মো সোহরাওয়ার্দী সাব্বির, বাঘাইছড়ি ঘুরে আসেঃ-রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের হেডম্যান পাড়া, বড়হুজুর পাড়াসহ পাঁচ গ্রামের মানুষ বহুবছর ধরে কাচালং নদীর উপর ঝুঁকি নিয়ে নৌকা পাড় হয়ে উপজেলা সদরের আসতে হয়।
প্রতিদিন স্কুল, মাদ্রাসা, কলেজগামী শত শত শিক্ষার্থীকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নৌকায় পারাপার হতে হয় এই কাচালং নদী উপর দিয়ে। এই নদীতে বর্ষা মৌসুমে নৌকা ডুবির ঘটনাও কম ঘটেনি। প্রায় সময় নৌকা পাড় হতে গিয়ে কাচালং নদীর প্রবল স্রোতের মাঝে নৌকা ডুবে। প্রায় সব মৌসুমে একই অবস্থা যাতায়াত করতে হয় এই পাঁচ গ্রামের মানুষের। বছরের পর বছর এ অবস্থা চলে আসলেও নদীটিতে ব্রীজ নির্মাণের কোন উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।
এমতাবস্থা লাগবে কয়েক বছর আগে বাঘাইছড়ির পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড বটতলি বাজারের সাথে ৭নং ওয়ার্ড সংযুক্ত করে কাচালং নদীর উপর ব্রীজ নির্মানের গুনজন শুনা গেলেও তা এখনো কোনো সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কোনো বাজেট বা এই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কোনো দপ্তর এগিয়ে আসেনি।
এখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই কাচালং নদীর উপর পাড়াপাড় হয়ে আসছে। এই পাঁচ গ্রামের মানুষের যাতায়াতের কষ্টের কোনো শেষ নেই। এখানে একটি ব্রীজের অভাবে নদীর দুই পাড়ের হাজার হাজার মানুষকে ভোগান্তি পোহাতে হয়। বর্ষা মৌসুমে যখন নদী পানিতে ভরে যায়, নদীর জলভাগের আয়তন বেড়ে যায় তখন পারাপারের অপেক্ষায় অনেক সময় বসে থাকতে হয়। সন্তান সম্ভবা মা-বোন অসুস্থ রোগী নিয়ে বিপাকে পরতে হয়।
তারা আরও বলেন, বিভিন্ন সময়ে তাদের এই কষ্টের কথা বিভিন্ন সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানিয়েও কোনো সাড়া এখনো পাওয়া যায়নি। এখানে দ্রুত একটা বীজ নির্মাণ প্রয়োজন তুলে ধরে সর্বস্থরের সাধারণ মানুষ কাচালং নদীর উপর বটতলি বাজারের সাথে সংযুক্ত করে ব্রীজ নির্মানের দাবি জানান।
বটতলি বাজারের সাথে কাচালং নদীর উপর এই ব্রীজ নির্মান হলে অদূরভবিষ্যৎ রাঙ্গামাটির সাথে বাঘাইছড়ির সরাসরি যে সড়ক যোগাযোগ তা আরও সহজ মাধ্যম হিসেবে ও ব্যবহার করতে পারবে এই ব্রীজ। যা পাঁচ গ্রামের মানুষের সাথে পুরো বাঘাইছড়ি বাসি এর সুফল ভোগ করতে পারবে এই একটি ব্রীজে।