লংগদুতে ঝুঁকিপূর্ণ সেতুতে যান চলাচলে নিষিদ্ধ, নতুন সেতু নির্মাণের আশ্বাস

384

লংগদু প্রতিনিধিঃ-রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলায় ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটিতে যান চলাচলে নিষিদ্ধ ঘোষনা করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলার বগাচতর ইউনিয়নের গাউচপুর ফরেস্ট অফিস এলাকায় নদীর উপর নির্মিত সেতুটি। পাহাড়ী ঢলের প্রবল স্রোতে সেতুটির মাঝখানের একটি পিলারের নিচ থেকে মাটি সরে নড়বড়ে হয়ে গেছে এবং আরেকটি পিলার ও রেলিং ভেঙ্গে গেছে অনেক আগে। যার ফলে সেতুটি বর্তমানে মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে।
উপজেলার পূর্ব পাড়ের বগাচতর, গুলশাখালী ও ভাসাইন্যাদম এই তিনটি ইউনিয়নের অর্ধলক্ষাধিক জনসাধারণ মোটরসাইকেল ও পায়ে হেটে যাতায়ত করেন গাউচপুর ফরেস্ট অফিস এলাকার সেতুটি দিয়ে। সেতুটি নড়বড়ে এবং খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় যে কোন সময় দূর্ঘটনা ঘটার আশঙ্খা করছেন এলাকাবাসী। এবিষয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায়, অনলাইন ও ফেইসবুকে অনেক লেখালেখি হলে উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর হয়।
মঙ্গলবার (২১ জুলাই) লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাইনুল আবেদীন সরেজমিনে সেতুটি পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ যোবায়ের হোসেন, উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী চিদ্দিকুর রহমান, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং স্থানীয় জনগণ উপস্থিত ছিলেন।
শেষে সকলের সম্মতিক্রমে চলাচলের বিকল্প ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত এই সেতুর উপর দিয়ে শুধুমাত্র পায়ে হেটে পারাপার হওয়া যাবে, তবে কোনো মোটরসাইকেল চালিয়ে পার হওয়া যাবে না। অতিদ্রুত (২/১ দিনের মধ্যে) আপদকালীন সময়ের জন্য মোটরসাইকেল পারাপারের উদ্দেশ্যে কয়েকটি নৌকার সাহায্যে অস্থায়ী ফেরীর ব্যবস্থা করা হবে। অত্যন্ত দ্রুততার সাথে বিকল্প (বাঁশ ও কাঠের) সেতু তৈরির ব্যবস্থা করা হবে। তখন আর ঝুকিপূর্ণ সেতুতে হেটে পার হওয়া যাবে না। সেতুটি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ থাকবে বলে সিদ্ধ্যান্ত নেওয়া হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরো বলেন, যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে নতুন ব্রিজ নির্মাণ সংক্রান্ত প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে। আশা করা যায়, খুব দ্রুততম সময়ে নতুন ব্রিজের নির্মাণ কাজ শুরু হবে।
বিকল্প ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত সকলকে এই সেতু দিয়ে যেন সাবধানের সাথে হেটে পারাপার হয় তার জন্য তিনি এলাকাবাসীর প্রতি বিশেষ অনুরোধ জানিয়েছেন।