রাঙ্গামাটিতে বৃহত্তর বনরুপার সকল শপিংমল-শোরুম-বিপণি বিতান বন্ধের সিদ্ধান্ত

4128

শাহ আলম, রাঙ্গামাটিঃ- স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ঝুঁকি এড়াতে রাঙ্গামাটিতে বৃহত্তর বনরুপার (নিউ মার্কেট-ফিসারীঘাট) সকল শপিংমল, শোরুম, ব্রান্ডশপ, মার্কেট ও বিপনি বিতান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বৃহত্তর বনরুপা ব্যবসায়ী কল্যান সমবায় সমিতি লিমিটেড।

শনিবার (৯ মে) দুপুর ১২টার দিকে বৃহত্তর বনরুপা ব্যবসায়ী কল্যান সমবায় সমিতি লিমিটেড উদ্যোগে বৃহত্তর বনরুপার সকল শপিংমল মার্কেট সমিতির যৌথ সভায় আগামী ঈদুল ফিতর পর্যন্ত এই প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন বৃহত্তর বনরুপা ব্যবসায়ী কল্যান সমবায় সমিতি লিমিটেড সভাপতি মোঃ আবু সৈয়দ।

তিনি জানান, ওষুধ, কাঁচামাল ও মুদি দোকান এই সিদ্ধান্তের বাইরে থাকবে। রাঙ্গামাটিতে সম্প্রতি কয়েকজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। সংক্রমনের হার প্রতিনিয়ত বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে, ফলে আমরা মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে আছি জানিয়ে মোঃ আবু সৈয়দ আরো বলেন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী যে নির্দেশনা দেয়া হয়, শপিং মলে প্রবেশের সময় হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করে হাত জীবাণুমুক্ত করতে হবে। দোকানের ভেতরে নিশ্চিত করতে হবে সামাজিক দূরত্ব।

কিন্তু হাজারো ক্রেতা সমাগমে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে না পারার আশঙ্কা, দেশ ও জনগণের স্বার্থে তথা মহামারি করোনা ভাইরাস আক্রান্তের পরিসংখ্যান বিবেচনায় আগামী ঈদুল ফিতর পর্যন্ত সকল শপিংমল, শোরুম, ব্রান্ডশপ, মার্কেট ও বিপণি বিতান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সমিতি। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসব খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে ওষুধ, কাঁচামাল ও মুদি দোকান এই সিদ্ধান্তের বাইরে থাকবে। করোনা ভাইরাসের বিস্তাররোধে ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের আরও কয়েকটা দিন ধৈর্য ধরার আহ্বান জানান তিনি।

উল্লেখ্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, কথা ছিল ঈদ উপলক্ষে শর্ত সাপেক্ষে ১০ মে থেকে সীমিত পরিসরে খুলবে বিপণিবিতান ও শপিংমল। নির্দেশনা দেয়া হয়, শপিং মলে প্রবেশের সময় হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করে হাত জীবাণুমুক্ত করতে হবে। দোকানের ভেতরে নিশ্চিত করতে হবে সামাজিক দূরত্ব।